গত ২৪ ঘন্টায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ।কারণ কি, কোথায় থেকে এল ? বিস্তারিত রইল ।


বুধবার এক দিনে দেশ জুড়ে করোনায় আক্রান্ত হলেন ৪৩৭ জন মানুষ। পরিসংখ্যান বলছে করোনা থাবা বসানোর পর থেকে এক দিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত হলেন বুধবারই। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত গোটা দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১৮৩৪।
এখনও পর্যন্ত দেশে করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ৪১ জনের। তবে আশাও রয়েছে। ১৪৪ জন করোনা আক্রান্ত সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।
বুধবারই স্বাস্থ্য সচিব লাভ আগরওয়াল জানান, হঠাৎ করে এই এত মানুষের মধ্য সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বড় কারণ তবলিঘির জামাত। দেশে করোনা সংক্রমণের গতি এমনিতে খুব বেশি বাড়েনি। লাভ আগরওয়ালের মতে নতুন করে ২৪ ঘণ্টায় যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের অন্তত ১৫০ জন নিজামুদ্দিন জমায়েত থেকে নানা অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছিল। সেখান থেকেই বিপত্তির শুরু।

সমস্ত রাজ্যগুলিকে সতর্ক করা হয়েছে। জানানো হয়েছে জরুরিকালীন ভাবে তল্লাশি চালিয়ে বের করতে কোনও নিজামুদ্দিন-ফেরত বাসিন্দা লুকিয়ে রয়েছেন কিনা। ওই স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই দিল্লিতে ১৮০০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে।
*******************************************************************
সংখ্যাটা ক্রমশ আয়ত্তের বাইরে চলে যাচ্ছে। বুধবার সকাল পর্যন্ত ১৬০০ তে আটকে ছিল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আর রাতেই সেটা প্রায় কয়েক’শ এগিয়ে গেল।
স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমানে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২০০০। এর মধ্যে ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে ১৪১ জন সুস্থ হয়ে গিয়েছেন।
তেলেঙ্গানায় এদিন ১২ জনের নতুন সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। মৃত্যু হয়েছে একজনের। রাঁচিতে হিন্দিপিরি নামে একটি এলাকা থেকে ৯০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।
মুম্বইতে পাঁচ সিআইএসএফ জওয়ান আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়া রাজস্থানের চুরুতে সাত জন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। অন্ধ্রপ্রদেশে একদিনেই নতুন ৬৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন।
মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ জন বেড়েছে। মৃত্যু হয়েছে সাতজনের। পণ্ডিচেরীতে প্রথম আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। তিনি নিজামুদ্দিনের জমায়েত থেকে ফিরেছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

অসমে আটজন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন।
এদিকে, পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল আরও একজনের। নয়াবাদের প্রৌড়ের চিকিৎসা চলছিল পিয়ারলেস হাসপাতালে। বুধবার তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য