f

#বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে প্রধানমন্ত্রীর কী বার্তা দিলেন , আসুন জেনে নেওয়া জাক।


নিজস্ব প্রতিবেদন :-    করোনার প্রকোপে গোটা বিশ্ব এখন জর্জড়িত৷ গোটা বিশ্বের মানুষ করোনার আতঙ্কে একেবারে কোণঠাসা৷ করোনা মোকাবিলায় গোটা বিশ্বের স্বাস্থ্যকর্মীরা এখন লড়ে যাচ্ছে ৷ বিশ্বের এই পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে সবার এখন একটাই প্রার্থনা, গোটা বিশ্ব যেন দ্রুত করোনা মুক্ত হয়ে উঠে সুস্থ হয় ৷

এই ভাবনা নিয়েই বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে মঙ্গলবার সকাল সকালই ট্যুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ দেশের প্রত্যেকটি জনগণের সুস্থতাও কামনা করলেন তিনি ৷ সঙ্গে করোনা মোকাবিলায় তৎপর স্বাস্থ্যকর্মীদেরও ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী ৷


ট্যুইট করে প্রধানমন্ত্রী লিখলেন, ‘আসুন বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে সবাই শপথ করি ৷ করোনা মোকাবিলায় প্রথমে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে চলি ৷ নিজেও সুস্থ থাকি ও নিজের পরিবেশকেও সুস্থ রাখি ৷ আসুন আজকের দিনে ধন্যবাদ জানাই সেই সব মানুষকে যারা করোনা মোকাবিলায় রাত-দিন লড়ে যাচ্ছে "।
***************************************************************************

অবশেষে খুশির সংবাদ আসলো সমস্ত ভারতীয় দের জন্য। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর ভারত করোনা ভাইরাস এর মোকাবেলায় প্রস্তুত করল ভেকসিন। করোনা যে ভারতে টিকতে েপারবেনা তার প্রমাণ দিল বিশেষজ্ঞ গন। করোনাকে হারাতেই হবে৷ তামাম বিশ্ব ভ্যাকসিন তৈরিতে লেগে পড়েছে৷ দিনরাত এক করে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিত্‍সাবিজ্ঞানীরা৷ এরই মধ্যে হায়দরাবাদ থেকেই এল আশার খবরটা৷ হায়দরাবাদের সংস্থা 'ভারত বায়োটেক' তৈরি করে ফেলেছে করোনার ভ্যাকসিন৷ ভ্যাকসিনটির অ্যানিম্যাল ট্রায়ালের জন্য পাঠানো হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷  বেশ কিছুদিন ট্রায়াল চলার পর যদি সফল হয়ে যায়, তা হলে ভারতে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়া চালু হয়ে যাবে৷ গবেষকরা বলছেন, এই বছরেই ভ্যাকসিন চলে আসছে৷


রিপোর্ট অনুযায়ী, এই ভ্যাকসিনটি মুখে নয়, নাকে ড্রপ দেওয়া হবে৷ এক ফোঁটাতেই কাজ হবে৷ কোরোফ্লু নামের এই ভ্যাকসিন করোনা ছাড়াও অন্যান্য ফ্লু-ও রুখে দেবে৷ ভারত বায়োটেক-এর সিএমডি কৃষ্ণা ইলা জানালেন, করোনা ভাইরাস নাক দিয়েই শরীর ভিতরে প্রবেশ করে৷ তারপর বুকে বাসা বাঁধে৷ ধীরে ধীরে গোটা শরীরে সংক্রমণ হয়৷ তাই ভ্যাকসিনটি নাকে ড্রপ দেওয়ার জন্যই তৈরি করা হয়েছে৷

Post a Comment

0 Comments