Ads Area

পশ্চিমবঙ্গে বিরাট নিয়োগ চলছে। আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ এপ্রিল।


নিজস্ব প্রতিবেদন :- পশ্চিমবঙ্গ Co- operative service commission এর  মাধ্যমে বেশ কিছু সংখক কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক।  বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে বেশ কিছু শূন্যপদ খালি রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের এই সংস্থায়।
আবেদন চলবে গোটা এপ্রিল মাস পর্যন্ত , ৩০ এপ্রিল আবেদনের শেষ তারিখ।

নিচে  শূন্যপদ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হল 

১. ক্লার্ক
২. ব্যাঙ্ক কর্মচারী
৩.সহকারী ম্যানেজার
৪.সহকারী  ক্যাশিয়ার
৫.একাউন্ট সহকারী
৬. জুনিয়র অফিসার
৭.জুনিয়র সুপারভাইসার
৮. জুনিয়র সহকারী

মোট শূন্যপদ রয়েছে ৫৬ টি , পশ্চিমবঙ্গের যে কোন জায়গা থেকে আবেদন করা যাবে।

যোগ্যতা :- যে কোনো শাখায় স্নাতক পাস করে থাকলে এই শূন্যপদ গুলিতে আবেদন করা যাবে , সঙ্গে কম্পিউটার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

বয়স : -১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে হলে এই পদ গুলিতে আবেদন করা যাবে।
বেতন :- ২১০০০ থেকে ৩২০০০ টাকা প্রতি মাসে দেওয়া হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ এপ্রিল মাসের ৩০ পর্যন্ত।
official website www.wbcsc.org

***************************************************************************
  চিনের গবেষণাগার থেকে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস।’ আমেরিকার পর এবার একই অভিযোগে সরব ব্রিটেনও। যদিও বিশেষজ্ঞদের দাবি, পশুদেহ থেকেই মারণ রোগের জীবাণু ছড়িয়েছে। তারপরেও চিনের গবেষণাগার থেকে জীবাণু ছড়ানোর তত্ত্ব উড়িয়ে দিচ্ছে না ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন জরুরিকালীন কমিটি কোবরা (Cobra)।অবশ্য তাঁদের অভিযোগ খারিজ করেছে ব্রিটেনের চিনা দূতাবাস। সে দেশে নিযুক্ত চিন দূত জেং রংয়ের দাবি, “এই অভিযোগ মিথ্যা। এই ধরণের অভিযোগ চিন ও তার নাগরিকদের আত্মত্যাগকে অসম্মানিত করছে। যদি চিনের গবেষণাগারে এই জীবাণু তৈরি হত, তাহলে সেখানে এত মৃত্যু ঘটত না।”



চিনের পর ইউরোপকে ভরকেন্দ্র বানিয়েছে করোনা। ইটালি, ফ্রান্স, স্পেনের পর ব্রিটেনেও মৃত্যু মিছিল চলছে। আক্রান্তের সংখ্যাও হু হু করে বাড়ছে। দেদার পরীক্ষা-নিরীক্ষা চললেও প্রতিষেধক মেলেনি। এমনকী জীবাণু উৎপত্তি নিয়েও ধোঁয়াশা রয়েছে। অনেকেরই অভিযোগ, জৈব অস্ত্রে শত্রুদের ঘায়েল করতেই পরীক্ষাগারে এই মারণ জীবাণু বানাছিল চিন। সেখান থেকেই জীবাণু সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। আমেরিকা আগেই এই অভিযোগ জানিয়েছিল। এবার তাঁদের সুরে সুর মেলাল ব্রিটেনও। রানির দেশের পরিস্থিতি সামাল দিতে জরুরি কমিশন তৈরি করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ব্রিটেনের সংবাদপত্র ‘ডেইলি মেল’ কোবরা কমিশনের এক আধিকারিককে উদ্ধৃত করে লেখে, বিজ্ঞানীরা যতই বলুন, ইউহান প্রদেশের গবেষণাগারে জীবাণু তৈরির তথ্য উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.